নিখোঁজের এক মাস পর তীরে ভেসে এলেন বাবা-মেয়ে


তাসমানিয়ান সাগরে নিখোঁজের প্রায় এক মাস পর অস্ট্রেলিয়ার স্রোতে সাগরতীরে ভেসে এলেন এক বাবা ও মেয়ে।

নিউজিল্যান্ডের অধিবাসী ওই বাবা ও তাঁর ছয় বছর বয়সী মেয়েশিশু সাগরে হারিয়ে গিয়েছিলেন। এ সময়ে দুজনে ক্ষতিগ্রস্ত নৌকায় চড়ে তাসমানিয়ান সাগরে প্রায় দুই হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছেন।

অ্যালান লংডন নামের ৪৬ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি ছোট্ট মেয়ে কোরাইয়াকে নিয়ে ২১ ফুট লম্বা নিজের নৌকা নিয়ে নিউজিল্যান্ডের কাউহিয়া থেকে পূর্ব তীরের সৈকতে ভ্রমণে বের হয়েছিলেন। কিন্তু সাগরে হঠাৎ ওঠা একটি ঝড় তাঁদের তীর থেকে অনেক দূরে নিয়ে যায়। ঝড়ে অ্যালানের নৌকার রাডার ভেঙে যায় এবং বাবা-মেয়ে সাগরে হারিয়ে যান।

অস্ট্রেলিয়ার স্থানীয় সময় বুধবার সিডনি থেকে ২৩০ কিলোমিটার দক্ষিণে উল্লাডুল্লা এলাকায় সৈকতে ভেসে আসে বাবা-মেয়েকে বহনকারী নৌকাটি। পরে দুজনকে ওই নৌকা থেকে উদ্ধার করা হয়।
photo-1484200925
উদ্ধার পাওয়ার পর অ্যালান বিভিন্ন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘রাডার ভেঙে যাওয়ার পর আমি তীরে ফিরে আসার চেষ্টা করি। কিন্তু বারবার আমাদের চেষ্টা ব্যর্থ হয় আর আমরা সাগরে ভাসতে থাকি।’

‘আমি ভালো আবহাওয়ার অপেক্ষায় ছিলাম। কিন্তু সেটি আসেনি। আর সেই পরিস্থিতিতে আমাদের নৌকা ক্রমাগত দক্ষিণে সরে যাচ্ছিল’, যোগ করেন অ্যালান।

নিউজিল্যান্ডের এই বাসিন্দা জানান, সাগরে মাছ শিকার করে বেঁচে ছিলেন তাঁরা। অনেক কষ্ট হয়েছে। কিন্তু ফেরার আশা ছাড়েননি।

অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উদ্ধারের পর বাবা ও মেয়েকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁরা অপুষ্টিতে ভুগছিলেন।

আর নিউজিল্যান্ডের নৌ পুলিশ জানিয়েছে, নিখোঁজ বাবা-মেয়েকে উদ্ধারে সাগরে অভিযান চালানো হয়েছে। কিন্তু তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগের কোনো উপায় না থাকায় সফলতা আসেনি।